HISTORY
1 min read

সুলতানা রাজিয়া কে ছিলেন | সুলতানা রাজিয়ার পরিচয় দাও | সুলতানা রাজিয়া সম্পর্কে কী জান?

সুলতানা রাজিয়া:

ভারতীয় উপমহাদেশে মুসলিম শাসনের ইতিহাসে একমাত্র মহিলা শাসক হলেন সুলতানা রাজিয়া। উপমহাদেশের রাজনীতিতে তার স্থান স্বর্ণোজ্জ্বল হয়ে আছে।

তিনি আজও কিংবদন্তীর মতো ইতিহাসে বিশিষ্ট স্থান দখল করে আছেন। তৎকালীন সময়ে সংকীর্ণতার বেড়াজাল ছিন্ন করে তিনি যে সাহসিকতার পরিচয় দেন তা সত্যিই বিরল দৃষ্টান্ত ।

→ সুলতানা রাজিয়ার পরিচয় : সেই প্রাচীন কাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত যতগুলো নারীশাসক নিজ মহিমায় পৃথিবীর ইতিহাসে অধীক পরিচিত হয়েছেন তার মধ্যে সুলতানা রাজিয়া অন্যতম । নিম্নে সুলতানা রাজিয়ার পরিচয় তুলে ধরা হলো :

১. বংশ পরিচয় : সুলতানা রাজিয়া ছিলেন সুলতান ইলতুৎমিশের কন্যা। তিনি নারী হয়েও তার পিতার ন্যায় যোগ্যতার পরিচয় ধরে রাখেন । তিনি ভারতের প্রথম নারী শাসক।

২. সিংহাসন লাভ : ইলতুৎমিশের কন্যা সুলতানা রাজিয়া । তার ভাইদের অযোগ্যতার কারণে দিল্লির সিংহাসনে বসার সুযোগ পান তিনি। সুলতানা রাজিয়া ১২৩৬ সালে দিল্লির সিংহাসনে আরোহণ করেন।

৩. রাজ্য শাসন : বিদ্রোহ দমন সত্ত্বেও সুলতানা রাজিয়া শান্তিপূর্ণভাবে রাজত্ব করতে পারেননি। তিনি পর্দাপ্রথা ও হারেম প্রথা অবজ্ঞা করে পুরুষের পোশাক পরিধান করে প্রকাশ্যে সিংহাসনে উপবেশ করেন।

যোদ্ধার পোশাকে সজ্জিত হয়ে অশ্বে আরোহণ করেন। তিনি স্বয়ং বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেন। তার এরূপ আচরণে তুর্কি আমিরগণ সুলতানার বিরুদ্ধে জঘন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন।

রাজিয়া আবিসিনিয়ার অধিবাসী ইয়াকুতকে রাজকার্যের উচ্চপদে নিয়োগ করেন। তিনি পাঞ্জাবের বিদ্রোহও দমন করতে সক্ষম হন।

কিন্তু ভাতিন্ডার শাসনকর্তা আলতোনিয়ার বিদ্রোহ দমনে ইয়াকুত নিহত হয়। এ পরিস্থিতিতে রাজিয়া আলতোনিয়ারকে বিবাহ করেন।

তারা যৌথভাবে সিংহাসন উদ্ধারে দিল্লি অভিমুখে যাত্রা করলে পথিমধ্যে ১২৪০ সালে এক হিন্দু আততায়ী কর্তৃক দুজন নিহত হন।

৪. কৃতিত্ব : মুসলমান নারী হিসেবে রাজিয়াই প্রথম দিল্লির সিংহাসনে আরোহণ করেন। মাত্র চার বছর সাম্রাজ্য শাসনে তিনি অসাধারণ শাসন প্রতিভা ও কূটনৈতিক প্রজ্ঞার পরিচয় দেন।

তিনি ছিলেন নির্ভীক, উৎসাহী, সুদক্ষ ও সুযোগ্য সেনাপতি। তিনি ছিলেন একজন বিদ্ধান ও সাহিত্যিক। ঐতিহাসিক মিনহাজ-উস-সিরাজ বলেন, কিন্তু তার দুর্ভাগ্য যে, তিনি একজন নারী হিসেবে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, সুলতানা রাজিয়া একজন মহানুভবা এবং শ্রেষ্ঠ সুলতান ছিলেন। ভারতীয় উপমহাদেশের ইতিহাসের পাতায় সুলতানা রাজিয়া একটি বিশিষ্ট স্থানের অধিকারিনী হয়ে চিরদিন চিরভাস্বর হয়ে থাকবেন।

কারণ একজন নারী হিসেবে তিনি যেভাবে দিল্লি সালতানাতে শাসনযন্ত্রের হাল ধরেছিলেন, তা কেবল বিস্ময়করই নয়, প্রশংসনীয়ও বটে ।

শেষ কথা:
আশা করি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পছন্দ হয়েছে। আমি সর্বদা চেষ্টা করি যেন আপনারা সঠিক তথ্যটি খুজে পান। যদি আপনাদের এই “সুলতানা রাজিয়া কে ছিলেন | সুলতানা রাজিয়ার পরিচয় দাও ” আর্টিকেলটি পছন্দ হয়ে থাকলে, অবশ্যই ৫ স্টার রেটিং দিবেন।

5/5 - (39 votes)