বিজ্ঞান
1 min read

ছায়াপথ কাকে বলে | ছায়াপথ কি? | কয়েকটি ছায়াপথের নাম | ছায়াপথ কখন দেখা যায়

Updated On :

ছায়াপথ কাকে বলে?

রাতের অন্ধকার আকাশে উত্তর দক্ষিণে উজ্জ্বল দীপ্ত দীর্ঘ পথের মত যে তারকারাশি দেখা যায় তাকে ছায়া পথ বলে। ছায়া পথে লক্ষ কোটি নক্ষত্রের সমষ্টি। কোটি কোটি নক্ষত্রের মধ্যে সূর্যও এ ছায়াপথে অবস্থান করছে।

ছায়াপথের অপর নাম কী?

ছায়াপথের অপর নাম হল আকাশগঙ্গা বা মিল্কিওয়ে (Milky Way) অথবা গ্যালাক্সি।

কয়েকটি ছায়াপথের নাম?

মিল্কি ওয়ে (পৃথিবীর নিজস্ব ছায়াপথ)

দূরত্ব ০.০২৭ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

স্যাজিটারিয়াস ড্রফ স্ফিরোইডাল গ্যালাক্সি

দূরত্ব ০.০৮১ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

আরসা মেজর ২ ড্রফ

দূরত্ব ০.০৯৮ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

লার্জ ম্যাজেলানিক ক্লাউড (এলএমসি)

দূরত্ব ০.১৬৩ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

বুটেস ১

দূরত্ব ০.১৯৭ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

স্মল ম্যাজেলানিক ক্লাউড (এসএমসি, এনজিসি ২৯২):

দূরত্ব ০.২০৬ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

আরসা মাইনর ড্রফ

দূরত্ব ০.২০৬ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

 

ড্রাকো ড্রফ (ডিডিও ২০৮)

দূরত্ব ০.২৫৮ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

এনজিসি ২৪১৯

দূরত্ব ০.২৭৫ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

লিও ২ ড্রফ (লিও বি, ডিডিও ৯৩)

দূরত্ব ০.৭০১ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

লিও ১ ড্রফ (ডিডিও ৭৪, ইউজিসি ৫৪৭০)

দূরত্ব ০.৮২০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

লিও টি ড্রফ

দূরত্ব ১.৩৭০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

ফোনিক্স ড্রফ গ্যালাক্সি (পি ৬৮৩০)

দূরত্ব ১.৪৪০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

বারনার্ড’স গ্যালাক্সি (এনজিসি ৬৮২২)

দূরত্ব ১.৬৩০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

 এমজিসি১

দূরত্ব ২.০০০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

সেক্সটেনস ড্রফ এসপিএস

দূরত্ব ০.২৮১ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

স্কাল্পচার ড্রফ (ই৩৫১-জি৩০)

দূরত্ব ০.২৮৭ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

আরসা মেজর ১ ড্রফ (ইউএমএ ১ ডিএসপিএস):

দূরত্ব ০.৩৩০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

কারিনা ড্রফ (ই২০৬-জি২২০)

দূরত্ব ০.৩৩০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

ফরনেক্স ড্রফ (ই৩৫৬-জি০৪)

দূরত্ব ০.৪৬০ মিলিয়ন আলোকবর্ষ।

সূর্য কোন ছায়াপথে অবস্থিত?

সূর্য যে ছায়াপথে অবস্থিত সেই ছায়াপথের নাম মিল্কিওয়ে।

ছায়াপথ কখন দেখা যায়?

ছায়াপথ রাতে দেখা যায়। তবে মেঘহীন পরিষ্কার অমাবস্যার রাতে আকাশ জুড়ে একটা রঙিন রেখা দেখতে পাবেন। যেন আকাশে কেউ দুধ বা মিল্ক ঢেলে দিয়েছে ওটাই হল ছায়াপথ।

আমাদের ছায়াপথের নাম কি?

আমাদের ছায়া পথের নাম হল পৃথিবীর মিল্কি ওয়ে বা আকাশগঙ্গা।
5/5 - (19 votes)