পড়াশোনা

শিক্ষণ এবং প্রশিক্ষণের মধ্যে পার্থক্য

1 min read
শেখার কোন শেষ নেই। শেখার জন্য কোন বয়সের সীমা নেই। আমরা প্রতিদিন নতুন নতুন জিনিস শিখি। শিক্ষণ এবং প্রশিক্ষণ শেখার দুটি খুব সাধারণ পদ্ধতি। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে শিক্ষণ মূলত শ্রেণীকক্ষে শিক্ষার সাথে যুক্ত যেখানে ছাত্রছাত্রীকে বেছে নেওয়া কোর্স অনুসারে বিভিন্ন বিষয়ের তাত্ত্বিক জ্ঞান প্রদান করা হয়।
বিপরীতভাবে, প্রশিক্ষণ হল এমন একটি প্রক্রিয়া যা প্রশিক্ষণার্থীকে নির্দিষ্ট দক্ষতা প্রদানে সহায়তা করে। শিক্ষণ বা শিক্ষকতা একটি একাডেমিক ক্রিয়াকলাপ যেখানে একজন শিক্ষক শিক্ষার্থীকে প্রদত্ত বিষয়ে জ্ঞান এবং ধারণা প্রদান করেন যাতে তাকে ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত করা যায়।
প্রশিক্ষণ হল শেখার একটি প্রক্রিয়া যেখানে একজন ব্যক্তিকে একজন বিশেষজ্ঞের দ্বারা নির্দিষ্ট দক্ষতার বিষয়ে নির্দেশনা এবং নির্দেশিকা দেওয়া হয়, যা মূলত চাকরির সাথে সম্পর্কিত, এবং শিক্ষার্থীর কর্মক্ষমতা উন্নত করার জন্য।

শিক্ষণ কাকে বলে?

শিক্ষণ বলতে সেই পেশাকে বোঝায় যেখানে শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কলেজ, এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান প্রদান করা হয়। এটি শিক্ষার্থীদের মেধা ও মানসিক বৃদ্ধির জন্য একটি নির্দিষ্ট শৃঙ্খলার মধ্যে তাত্ত্বিক জ্ঞান প্রদান করা হয়। অতএব, একজন শিক্ষককে সঠিকভাবে শেখানোর জন্য নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রশিক্ষিত এবং জ্ঞানী হতে হবে।
এটি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা এবং নির্দেশনা প্রদান করে। এতে একজন ব্যক্তির চিন্তাভাবনা, কাজ করার পদ্ধতি, এবং ক্রিয়াকলাপ নিয়ন্ত্রিত হয়, যার মাধ্যমে শিক্ষার্থীকে একজন ভাল এবং দায়িত্বশীল মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা হয়।
শিক্ষণের মাধ্যমে তরুণ ছাত্র/ছাত্রীদের কৌতূহলী মনকে জাগ্রত করে এবং তাদের জ্ঞান, নৈতিক মূল্যবোধ, নৈতিকতা এবং যোগ্যতা অর্জনে সহায়তা করা হয়। শিক্ষার্থীদের আচরণ, চিন্তাভাবনা এবং ক্রিয়াকলাপে কাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন আনার চেষ্টা করা হয়। তদুপরি, শিক্ষার্থীদেরকে তাদের ক্যারিয়ারের জন্য সঠিক পথ বেছে নিতে এবং কীভাবে জীবনের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয় তা নির্দেশ করে।

প্রশিক্ষণ কাকে বলে?

প্রশিক্ষণ বলতে একটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে দক্ষতা এবং জ্ঞান প্রদানের জন্য কাউকে নির্দেশনা এবং প্রশিক্ষণ প্রদান করাকে বোঝায়। এটি এমন একটি শিক্ষা কার্যক্রম যা পর্যায়ক্রমিক প্রকৃতির এবং একটি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে প্রদান করা হয়। এই প্রক্রিয়ায় সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের একজন বিশেষজ্ঞ এর মাধ্যমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এটি দ্বারা প্রশিক্ষণার্থীরা জ্ঞান অর্জন করে তাদের পেশাগত দক্ষতাকে তীক্ষ্ণ করে তোলে। এছাড়া তাদের মনোভাব এবং দক্ষতা উন্নত করে, যাতে তারা তাদের নির্ধারিত কাজগুলো ভালভাবে সম্পাদন করতে পারে।
প্রশিক্ষণের লক্ষ্য হচ্ছে কর্মক্ষমতার সম্ভাব্যতা, উৎপাদনশীলতা, এবং দক্ষতা বৃদ্ধি করা অথবা জ্ঞানের কাঙ্ক্ষিত স্তরে পৌঁছাতে সাহায্য করা। প্রশিক্ষণ স্নাতকদের কর্ম-জীবন, অফিস সংস্কৃতি, কারখানার পরিবেশ ইত্যাদির প্রাথমিক জ্ঞান অর্জনে সহায়তা করে।
প্রশিক্ষণ মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার একটি হাতিয়ার, যা কর্মীদের মূল বিষয়গুলোকে উন্নত করতে এবং তাদের এমনভাবে বিকাশ করতে পারে, যাতে তারা তাদের দায়িত্ব ও কাজগুলো কার্যকরভাবে করতে পারে।
5/5 - (24 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.