আইন

আইনের সংজ্ঞা, উদ্দেশ্য, এবং বৈশিষ্ট্য

1 min read

আইন কাকে বলে

“আইন” অর্থ অধ্যাদেশ, আদেশ, বিধি, প্রবিধান, উপ-আইন, প্রজ্ঞাপন বা অন্যান্য আইনি উপকরণ এবং কোনো প্রথা বা ব্যবহার।
আইন হল আচরণের নিয়মের একটি সেট, যা সমাজের সকল সদস্যের আনুগত্য ও অনুসরণ করার জন্য সরকার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত।
আইন হল সামাজিক শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা বজায় রাখার জন্য নিয়ম ও প্রবিধানের সমষ্টি।
এর অর্থ রাষ্ট্র কর্তৃক প্রণীত ও প্রয়োগকৃত ব্যক্তির আচরণ, কর্ম বা আচরণের নিয়মের একটি সংস্থা। এটি মানুষের কর্মের একটি নিয়ম প্রকাশ করে।
আইন হল একটি সার্বভৌম রাজনৈতিক কর্তৃপক্ষ দ্বারা প্রয়োগ করা বাহ্যিক মানব কর্মের একটি সাধারণ নিয়ম।
আইন হচ্ছে নিয়মের ব্যবস্থা যা একটি নির্দিষ্ট দেশ বা সম্প্রদায় তার সদস্যদের ক্রিয়াকলাপ নিয়ন্ত্রক হিসাবে স্বীকৃতি দেয় এবং যা জরিমানা আরোপের মাধ্যমে প্রয়োগ করতে পারে।
অস্টিনের কমান্ড তত্ত্ব অনুসারে, ‘‘আইন হল একটি রাজনৈতিকভাবে সংগঠিত সমাজে সার্বভৌম কর্তৃপক্ষের আদেশের একটি অংশ যাতে রয়েছে কীভাবে মানুষ নিজেদের মধ্যে আচরণ করা উচিত।’’
ব্লকস্টোন এর মতে, ‘‘আইন সবচেয়ে সাধারণ এবং ব্যাপক অর্থে কর্মের একটি নিয়মকে নির্দেশ করে এবং লিঙ্গ, বর্ণ, ভাষা, জাতি, জন্ম, বর্ণ এবং ইত্যাদি নির্বিশেষে সমস্ত ধরণের কর্মের জন্য নির্বিচারে প্রয়োগ করা হয়।’’
স্যালমন্ডস, ‘‘বিচার প্রশাসনে রাষ্ট্র কর্তৃক স্বীকৃত ও প্রয়োগকৃত নীতির মূল অংশ।’’

আইনের উদ্দেশ্য

দেশীয় অথবা আন্তর্জাতিক যেকোন আইনের নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য রয়েছে। যেমন,
  • সমাজকে নিয়ন্ত্রণ করে।
  • অধিকার এবং বাধ্যবাধকতা নির্ধারণ করে
  • সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য।
  • আচরণ নিয়ন্ত্রণ করতে।
  • পরিবেশ রক্ষা করতে।
  • স্বাস্থ্য রক্ষা করতে।
  • ব্যক্তির গোপনীয়তা রক্ষা করতে।
  • ব্যবসা রক্ষা করতে।
  • আইন ও নিয়ম আমাদের জীবনের প্রতিটি দিককে প্রভাবিত করে।
  • আপনি যদি আইন ভঙ্গ করতে চান তবে আইন তার পরিণতি আরোপ করবে।
  • সমাজে ব্যক্তির আচরণ নিয়ন্ত্রণ করতে।
  • আইন হল সামাজিক পরিবর্তনের সম্ভাব্য হাতিয়ার। আইন ও সমাজ একে অন্যের পরিপূরক। আইন ছাড়া কোনো সমাজ চলতে পারে না।
  • সমাজে শান্তি বজায় রাখার জন্য।
  • নিয়ম প্রতিষ্ঠা করতে।
  • প্রতিকার প্রদান করে
  • সুরক্ষা প্রদান করে
  • অধিকার এবং স্বাধীনতা রক্ষা করতে।
  • সমাজকে রক্ষা করতে।
  • বিবাদের সমাধান করতে।

আইনের বৈশিষ্ট্য

“আইন” শব্দটি দিয়ে অনেক কিছু ব্যাখ্যা করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, মাধ্যাকর্ষণ আইন, চাহিদা এবং সরবরাহের আইন, সিভিল আইন এবং ফৌজদারি আইন ইত্যাদি।আইনের কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্য নিম্নরূপ:
  • মানুষের আচরণের একটি সাধারণ নিয়ম।
  • এটি নিয়মের একটি সংস্থা।
  • এটা মনুষ্যসৃষ্ট।
  • এটি চরিত্রগতভাবে আদর্শ।
  • এতে জবরদস্তির একটি উপাদান রয়েছে।
  • এর আঞ্চলিক সীমাবদ্ধতা রয়েছে।
  • এটি প্রকৃতিতে গতিশীল।
  • এটা নির্দিষ্ট রাষ্ট্রের বা রাজ্যের সব মানুষের জন্য সমানভাবে প্রযোজ্য।
  • সকলেই সমানভাবে রাষ্ট্রের আইনের অধীন।
  • রাষ্ট্রে বসবাসকারী বিদেশীরাও রাষ্ট্রের আইন দ্বারা আবদ্ধ।
  • আইন সুনির্দিষ্ট এবং এটি রাষ্ট্রের প্রণীত ইচ্ছা। এটি রাষ্ট্র কর্তৃক প্রণীত ও বাস্তবায়িত একটি নিয়ম।
  • রাষ্ট্র সবসময় আইনের মাধ্যমে কাজ করে। আইন সরকার দ্বারা প্রণীত এবং প্রয়োগ করা হয়।
  • আইন রাষ্ট্রের সকল মানুষের জন্য বাধ্যতামূলক।
  • আইন লঙ্ঘন সবসময় শাস্তি হয়।
  • শাস্তি বা জরিমানা আইন দ্বারা নির্ধারিত।
  • আদালত আইনের ভিত্তিতে জনগণের মধ্যে সমস্ত বিরোধ নিষ্পত্তি করে।
  • আইন সার্বভৌম একটি আদেশ। আইন প্রণীত হয় জনগণের প্রতিনিধিদের দ্বারা যারা রাষ্ট্রের আইনসভা গঠন করে। আইন জনমত এবং জনসাধারণের চাহিদা দ্বারা সমর্থিত।
  • আইনের উদ্দেশ্য হল জনগণকে শান্তি, সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা প্রদান করা এবং তাদের সার্বিক উন্নয়নের শর্ত নিশ্চিত করা। আইন জনগণের অধিকার ও স্বাধীনতার সুরক্ষা প্রদান করে।
5/5 - (20 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.