Blog
1 min read

Crypto staking থেকে কি ভাবে ইনকাম করবেন

যদি আপনার Crypto staking  সুবিধাযুক্ত ক্রিপ্টো কারেন্সী এবং স্টেবল কয়েন যেমন ইথার (ETH), সোলানা (Solana), কার্দানো (Cardano), বি এন বি কয়েন (BNB Coin), ইউ এস ডি টি ( USDT), ইউ এস ডি সি (USDC) এক বা একাধিক থাকে এবং ওই ক্রিপ্টো কারেন্সী থেকে এক্সট্রা ক্রিপ্টো কারেন্সী লাভ করতে চান তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য.

এখানে জানতে পারবেন কোন কোন ক্রিপ্টো কারেন্সী কোথায় স্টেকিং করে এক্সট্রা ইনকাম করবেন. এছাড়াও জানতে পারবেন ক্রিপ্টো স্টেকিং কেন করবেন এবং এর কি কি সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে.

What is crypto staking ?

Crypto staking হল একটি পদ্ধতি যেখানে ক্রিপ্টো বিনিয়োগকারীরা তাদের ক্রিপ্টো কারেন্সী ডিজিটাল ওয়ালেটের মধ্যে প্লাটফর্মের প্রোটোকল অনুসারে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য জমা রাখেন.

এই জমা করার সময় সীমা কয়েক দিন থেকে শুরু করে কয়েক সপ্তাহ, কয়েক মাস পর্যন্ত হতে পারে  এবং এই জমা করা ক্রিপ্টো কারেন্সী  প্রুফ অফ স্টেক ব্লকচেইনের ট্রানসাকশান ভ্যালিডেশন বা যাচাইকরণের কাজে ব্যবহৃত হয়ে থাকে.

ট্রানসাকশান ভ্যালিডেশন এ অংশগ্রহণ করার জন্য বিনিয়োগকারীদের স্টেকিং রিওয়ার্ড হিসাবে এক্সট্রা ক্রিপ্টো কারেন্সী দেওয়া হয়ে থাকে.

How does crypto staking work ? | ক্রিপ্টো স্টেকিং কি ভাবে কাজ করে ?

ক্রিপ্টো স্টেকিং এ অনেক টেকনিকাল নলেজ সম্পন্ন ভ্যালিডেটর থাকে যারা  দিন রাত কোনো ডাউন টাইম ছাড়াই দামি ভ্যালিডেটর সফটওয়্যার সম্পন্ন কম্পিউটার এর মাধ্যমে ব্লকচেইনের  ট্রানসাকশান গুলিকে ভেরিফাই করে থাকে.

আপনি যখন ক্রিপ্টো স্টেকিং প্লাটফর্ম যেমন কয়েনবেস, বিন্যান্স, কুকয়েন, জেমিনির মতো এক্সচেঞ্জ গুলিতে ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করবেন, তখন আপনার ক্রিপ্টো কারেন্সী গুলি ওই নির্দিষ্ট প্লাটফর্মের এক জন ভ্যালিডেটরের কাছে জমা হবে.

এবং তিনি আপনার হয়ে ব্লকচেইন ট্রানসাকশান গুলিকে যাচাই করার কাজ করবে. ওই ভ্যালিডেটর ট্রানসাকশান যাচাই করার জন্য রিওয়ার্ড হিসাবে কিছু  ক্রিপ্টো কারেন্সী লাভ করবে এবং এই ট্রানসাকশানে যেহেতু  আপনি পরোক্ষ ভাবে জড়িত, সেই জন্য রিওয়ার্ড এর কিছু অংশ আপনিও ক্রিপ্টো কারেন্সীতে  পাবেন.

Best crypto staking platforms

বর্তমানে বিশ্বের ৪ টি জনপ্রিয় ক্রিপ্টো স্টেকিং প্লাটফর্ম নিচে দেওয়া হল যেখানে আপনি ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করে বা বন্ধক রেখে প্যাসিভ ইনকাম সোর্স তৈরী করতে পারবেন.

জেমিনি (Gemini) :  জেমিনি আর্ন প্রোগ্রাম (Gemini Earn Program)  ৪৫ টিরও বেশি ক্রিপ্টো কারেন্সী সাপোর্ট করে থাকে. জেমিনি আর্ন প্রোগ্রাম আসলে এটি একটি স্টেকিং প্রোগ্রাম নয়. এটি একটি লেন্ডিং প্রোগ্রাম.

এখানে আপনি ৪৫ টিরও বেশি ক্রিপ্টো কারেন্সী ধার বা লেন্ড হিসাবে জমা করতে পারবেন এবং ধার দেওয়া ক্রিপ্টোর উপর সুদ হিসাবে ক্রিপ্টো লাভ করবেন. এখানে আপনি স্টেবল কয়েন যেমন USDC, প্যাক্স গোল্ড (Pax Gold) ধার বা লেন্ডিং হিসাবে জমা করতে পারবেন.

কয়েনবেস (Coinbase) : কয়েনবেস খুব সীমিত সংখ্যক ক্রিপ্টো স্টেকিং সুবিধা দিয়ে থাকে. কয়েনবেসে আপনি ৬ টি ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করতে পারবেন. কয়েন গুলি হল ইথার (ETH), তেজস (XTZ), কার্দানো (ADA ), সোলানা (SOL), আলগোরান্ড এবং কসমস.

ক্রিপ্টো স্টেকিং করার আগে অবশ্যই একাউন্ট এ আপনার মিনিমাম ক্রিপ্টো ব্যালান্স থাকা দরকার যা ওই নির্দিষ্ট ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং এর জন্য প্রয়োজন হয়ে থাকে.

বিন্যান্স (Binance) :  বিন্যান্স ২২ টিরও বেশি ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং সুবিধা দিয়ে থাকে. আপনি বিন্যান্সে এথেরিয়ামের ইথার (ETH), বিন্যান্স এর নিজস্ব নেটিভ ক্রিপ্টো কারেন্সী বিন্যান্স কয়েন (BNB) সহ কার্দানো (ADA) , সোলানা (SOL) , অভ্যালেঞ্চ (AVAX) , কসমস (ATOM),  অডিয়াস ( AUDIO), লাইভ পেয়ার (LPT),  দি গ্রাফ (GRT) সহ আরও অনেক ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করতে পারবেন.

কুকয়েন (Kucoin) : কুকয়েন প্লাটফর্ম ৫০টির বেশি ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং সুবিধা দিয়ে থাকে যা অন্য প্লাটফর্ম এর তুলনায় সব থেকে বেশি. এখানে আপনি এথেরিয়ামের ইথার (ETH) ছাড়াও জনপ্রিয় স্টেবল কয়েন যেমন তিথার (Tether, USDT), ইউ এস ডি কয়েন (USDC) সহ আর অনেক কয়েন স্টেকিং করতে পারবেন.

Best crypto staking coins |১০ টি সব থেকে বেশি ক্রিপ্টো স্টেকিং যুক্ত কয়েন.

বর্তমানে ১০ টির বেশি ক্রিপ্টো স্টেকিং যুক্ত কয়েন যে গুলি স্টেকিং এ বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে.

তিথার ( Tether, USDC),

এথেরিয়াম (ETH),

ইউ এস ডি কয়েন (USDC),

পলকাডট ( Polkadot, DOT),

তেজোস (XTZ),

বিন্যান্স (BNB),

সোলানা (SOL),

অভ্যালেঞ্চ (AVAX),

কারডানো  (ADA),

পলিগন  ( MATIC).

কি ভাবে ক্রিপ্টো স্টেকিং শুরু করবেন ?

আপনার কাছে যদি ক্রিপ্টো স্টেকিং সুবিধা যুক্ত ক্রিপ্টো কারেন্সী থাকে, তাহলে সেগুলিকে স্টেকিং করতে পারবেন.

আপনি খুব সহজেই বিভিন্ন ক্রিপ্টো স্টেকিং প্লাটফর্ম গুলিতে যারা ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং সুবিধা দিয়ে থাকে যেমন কয়েনবেস, বিন্যান্স, কুকয়েন, জেমিনির মতো এক্সচেঞ্জ এর  মাধ্যমে যে কোনো পরিমান ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করতে পারবেন.

এর জন্য প্রথমে আপনাকে নির্দিষ্ট করতে হবে আপনার কাছে স্টেকিং সুবিধা যুক্ত  কোন কোন ক্রিপ্টো কারেন্সী রয়েছে বা কোন ক্রিপ্টো কারেন্সী কিনে তার পর সেগুলিকে স্টেকিং করতে চান.

এর পর কোন কোন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ প্লাটফর্ম ওই ক্রিপ্টো স্টেকিং সুবিধা দিচ্ছে তা জানতে হবে এবং সেই প্লাটফর্মে একাউন্ট তৈরী করে আপনি ক্রিপ্টো স্টেকিং শুরু করতে পারবেন.

ক্রিপ্টো স্টেকিং এবং ক্রিপ্টো হোল্ডিং এর মধ্যে কোনটি অপেক্ষাকৃত ভালো ?

হোল্ডিং এ এক মাত্র জমা করা ক্রিপ্টো কারেন্সীর মূল্য বৃদ্ধিতে আপনি রিটার্ন পাবেন.

অন্যদিকে ক্রিপ্টো স্টেকিং এ ক্রিপ্টো কারেন্সীর মূল্য বৃদ্ধি এবং ওই বৃদ্ধি মূল্য পুনঃবিনিয়োগ হয়ে তার উপর আপনি রিটার্ন পাবেন.

হোল্ডিং এ আপনাকে কারেন্সী মূল্য বেশি দেখভালের প্রয়োজন হয় না.

ক্রিপ্টো স্টেকিং এ ক্রিপ্টো কারেন্সী প্রাইস মুভমেন্ট বেশি দেখভালের প্রয়োজন বা মনিটরিং করার প্রয়োজন হয়.

হোল্ডিং এ ক্রিপ্টো কারেন্সীর লিকুইডিটি বেশি হয়ে থাকে অর্থাৎ আপনি যখনই চাইবেন তখনই বিক্রি করতে পারবেন.

ক্রিপ্টো স্টেকিং এ লিকুইডিটি থাকে না. আপনি প্লাটফর্ম প্রোটোকল অনুসারে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য জমা করেন এবং এই ক্রিপ্টোকারেন্সী ওই সময়ের আগে কোনো রকম উইথড্র, সেল বা ট্রেড করতে পারবেন না.

ক্রিপ্টো স্টেকিং এর সুবিধাগুলি

ক্রিপ্টো স্টেকিং এর মাধ্যমে আপনি নিচের সুবিধা গুলি পাবেন.

• প্যাসিভ (Passive) ইনকাম সোর্স :  যদি আপনার কাছে কিছু ক্রিপ্টো কারেন্সী থাকে এবং ওই ক্রিপ্টো কারেন্সী ভবিষ্যতে বিক্রি  করার কোনো রকম প্ল্যান না থাকে তাহলে আপনি ঐ ক্রিপ্টোকারেন্সী গুলিকে স্টেকিং প্লাটফর্মে জমা রেখে এক্সট্রা ইনকাম বা প্যাসিভ ইনকাম সোর্স তৈরী করতে পারবেন. যেখানে আপনি নির্দিষ্ট সময় শেষে এক্সট্রা ক্রিপ্টো লাভ করবেন.

• সহজ পদ্ধতি ( Easy Process) : আপনি খুব সহজেই ক্রিপ্টো স্টেকিং করতে পারবেন. এখানে  মাইনিং এর মতো যন্ত্রপাতির দরকার হয় না. স্টেকিং করার জন্য আপনার দরকার হবে কিছু ক্রিপ্টো কারেন্সী এবং একটি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ বা ক্রিপ্টো ওয়ালেট.

• ক্রিপ্টো প্রজেক্ট সাপোর্ট করা : ক্রিপ্টো কারেন্সী জমা করার জন্য আপনি ঐ ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ এর সিকিউরিটি এবং প্লাটফর্মের কাজকর্মকে আরও ভালো ভাবে করার কাজে সাহায্য করে থাকেন. এর ফলে প্লাটফর্মের হ্যাকার এটাক প্রতিরোধ এবং ট্রানসাকশান প্রসেসিং ক্ষমতা আরও বেড়ে যায়.

Crypto staking risks | ক্রিপ্টো স্টেকিং এর অসুবিধাগুলি

ক্রিপ্টো স্টেকিং এর সুবিধার সাথে সাথে  কিছু অসুবিধাও রয়েছে তা নিচে দেওয়া হল

• আপনি যখন কোনো ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং করবেন তখন স্টেকিং প্রোগ্রাম অনুসারে আপনি  নির্দিষ্ট সময়ের জন্য যা কয়েক দিন থেকে শুরু করে কয়েক সপ্তাহ, কয়েক মাস পৰ্যন্ত হতে পারে. ঐ সময়ের আগে আপনি ক্যাশ আউট বা ঐ ক্রিপ্টো কারেন্সী ট্রেড বা ব্যবহার করতে পারবেন না.

• ক্রিপ্টোকারেন্সী অত্যন্ত ভোলাটাইল হওয়ায় লক ইন পিরিয়ডে স্টেকিং ক্রিপ্টো কারেন্সীর মূল্য কমলে, আপনি ওই ক্রিপ্টো কারেন্সী বিক্রি করতে পারবেন না, এক্ষেত্রে আপনার লস হবে. আর বাজার মূল্য উপরে গেলে আপনি ভালো রকম রিটার্ন পাবেন.

• অনেক প্রুফ অফ স্টেকিং প্লাটফর্ম ” স্ল্যাশিং ” (Slashing) পদ্ধতি ব্যবহার করে ভ্যালিডেটরদের শাস্তি দিয়ে থাকে যারা অসৎ উপায়ে ট্রানসাকশান ভেরিফাই করে থাকে.

“স্ল্যাশিং” এ নেটওয়ার্কের কাছে জমা করা ভ্যালিডেটরদের ক্রিপ্টো কারেন্সীর কিছু অংশ নেটওয়ার্ক নষ্ট করে থাকে. সেই জন্য আপনি যদি অসৎ ভ্যালিডেটর এর মাধ্যমে ক্রিপ্টো স্টেকিং করেন তাহলে আপনার লস হতে পারে.

বিন্যান্সে কি ভাবে স্টেকিং করবেন ?

আপনি বিন্যান্সে কি ভাবে স্টেকিং করবেন চলুন তা ধাপে ধাপে শেখা যাক.

প্রথমে আপনি আপনার বিন্যান্স একাউন্ট লগ ইন করবেন.

এর পর একাউন্ট এর একদম উপরের সারিতে নিচের ক্যাটাগরি পাবেন.

* বাই ক্রিপ্টো (Buy Now)

* মার্কেট (Market)

* ট্রেড  (Trade)

* ডেরিভেটিভস ( Derivatives)

* ফিনান্স (Finance)

* এন এফ টি (NFT)

* ওয়ালেট (Wallet)

* অর্ডার (Order)

উপরের ক্যাটাগরির মধ্য থেকে ফিন্যান্স (Finance) সিলেক্ট করে ক্লিক করবেন.

এর পর আপনি ফিন্যান্সে

* বিন্যান্স আর্ন (Binance Earn)

* বিন্যান্স পুল (Binance Pool)

* বিন্যান্স ভিসা কার্ড (Binance Visa Card),

* ক্রিপ্টো লোন (Crypto Loan)

* লিকুইড সোয়াপ ( Liquid Swap) এবং

* বিন্যান্স পে (Binance Pay) দেখতে পাবেন.

এদের মধ্যে থেকে আপনি বিন্যান্স আর্ন (Binance Earn) সিলেক্ট করবেন.

বিন্যান্স আর্নে আপনি

* সেভিংস (Savings),

* লকড সেভিংস (Locked Savings),

* লঞ্চ পুল (Launch Pool),

* বি এন বি ভল্ট (BNB Vault),

* ইথার টু পয়েন্ট জিরো স্টেকিং ( ETH 2.0 Staking)

* লিকুইড সোয়াপ (Liquid Swap) দেখতে পাবেন.

এদের মধ্যে থেকে আপনি লকড সেভিংস (Locked Savings) সিলেক্ট করে  “Go to Staking” এ ক্লিক করবেন.

এর পর আপনি লকড সেভিংস স্টেকিং এ উপরের দিকে একদম ডানদিকে  ডিসপ্লে অ্যাভেইলেবেল অনলিতে ( Available Only) টিক দেবেন এবং যে কয়েনগুলি স্টেকিং এর জন্য পাওয়া যাচ্ছে তা এখানে দেখতে পাবেন. এদের মধ্য থেকে যে কয়েনটি আপনি স্টেকিং করতে চান সেটি সিলেক্ট করে স্টেক নাউ ( Stake Now) এ ক্লিক করবেন.

এর পর আপনি বাঁ দিকে ডিউরেশন (Duration) এবং লক এমাউন্ট (Lock Amount) দেখতে পাবেন. এই মুহূর্তে বিন্যান্স ১৫ দিন, ৩০ দিন, ৬০ দিন এবং ৯০ দিনের সময়সীমার স্টেকিং সুবিধা দিচ্ছে এবং প্রতিটি কয়েনের আলাদা আলাদা একটি সর্ব নিম্ন এমাউন্ট রয়েছে যা স্টেকিং এর জন্য  আপনার স্পট ওয়ালেটে থাকতে হবে.

এর পর ডান দিকে দেখতে পাবেন,

স্টেক ডেট (Stake Date) – আপনি যে তারিখ থেকে স্টেকিং শুরু করেছেন.

ভ্যালু ডেট (Value Date) – যে ডেট থেকে প্রকৃত স্টেকিং এ ইন্টারেস্ট শুরু হবে.

ইন্টারেস্ট এন্ড ডেট – আপনার যে সময়ে ইন্টারেস্ট শেষ হবে অর্থাৎ স্টেকিং এর শেষ ডেট.

এস্টিমেটেড এ পি ওয়াই (Est. APY) – বছরে যে সুদের হারে কোনো কয়েনের উপর  ইন্টারেস্ট পাবেন.

এস্টিমেটেড ইন্টারেস্ট (Est. Interest) – আপনার জমা করা কয়েনের উপর স্টেকিং সময়সীমার শেষে যে পরিমান সুদ পাবেন.

সময়সীমার মধ্যে সময় এবং লক এমাউন্ট এ কয়েনের পরিমান পূরণ করে, বিন্যান্সের স্টেকিং সার্ভিস এগ্রিমেন্টে টিক (✓) দিয়ে কন্ফার্ম এ ক্লিক করলেই আপনার কয়েন স্টেকিং প্রসেস কমপ্লিট হবে এবং আপনার জমা করা কয়েনের উপর ইন্টারেস্ট পেতে শুরু করবেন.

আপনার কি ক্রিপ্টো স্টেকিং করা উচিত ?

কিছু প্রশ্ন ও উত্তর

১.প্রশ্ন : ক্রিপ্টো স্টেকিং এর সময় ক্রিপ্টোকারেন্সী কি চুরি হতে পারে ?

উত্তর : হ্যা, ক্রিপ্টো স্টেকিং এর সময় ক্রিপ্টোকারেন্সী চুরি হতে পারে. আপনি যে প্লাটফর্ম ক্রিপ্টো স্টেকিং এর জন্য ব্যবহার করছেন সেটি যদি সিকিওর বা সুরক্ষিত না হয় অথবা আপনি যে ক্রিপ্টো ওয়ালেটে ক্রিপ্টো স্টেকিং করছেন সেটি যদি  সুরক্ষিত না হয় তাহলে আপনার ক্রিপ্টো কারেন্সী চুরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে.

সেই জন্য ক্রিপ্টো কারেন্সী স্টেকিং এর  সময় সব সময় রেপুটেড বা প্রসিদ্ধ ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ এবং ওয়ালেট ব্যবহার করবেন.

২. প্রশ্ন : ক্রিপ্টো স্টেকিং থেকে কি পরিমান আয় করতে পারব ?

উত্তর : ক্রিপ্টো স্টেকিং থেকে আপনি কি পরিমান আয় করতে পারবেন তা ক্রিপ্টোকারেন্সী এবং ক্রিপ্টো স্টেকিং প্লাটফর্মের উপর নির্ভর করে থাকে. যেমন কয়েনবেস এথেরিয়ামের ইথার (ETH) ক্রিপ্টো স্টেকিং এর জন্য ৪.০০ শতাংশ বাৎসরিক রিটার্ন দিয়ে থাকে যেখানে আলগোরান্ড (Algorand) ক্রিপ্টো স্টেকিং এর জন্য ৫.৭৫ শতাংশ বাৎসরিক রিটার্ন দিয়ে থাকে.

৩. প্রশ্ন : কোন প্লাটফর্ম ক্রিপ্টো ক্রিপ্টো স্টেকিং এর জন্য সব থেকে ভালো ?

উত্তর : আপনি ক্রিপ্টো স্টেকিং এর জন্য বিন্যান্স, কয়েনবেস, জেমিনি, কুকয়েন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ গুলিকে ব্যবহার করতে পারেন.

এতক্ষন জানলেন ক্রিপ্টো স্টেকিং কি, এটি কি ভাবে কাজ করে এবং বিন্যান্সে কি ভাবে স্টেকিং করবেন. আপনি কি এর আগে ক্রিপ্টো স্টেকিং এ বিনিয়োগ করেছেন ? করলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না. পোস্ট ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার ক্রিপ্টোপ্রেমী বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না.

5/5 - (31 votes)