ব্যঞ্জনবর্ণের সাথে স্বরবর্ণের অথবা ব্যঞ্জনবর্ণের সাথে ব্যঞ্জন বর্ণের মিলনে যে সন্ধি হয় তাকে ব্যঞ্জনসন্ধি বলে। যেমন– মুখ + ছবি = মুখচ্ছবি, বাক্ + ধারা = বাগধারা, সম্ + সার = সংসার, উৎ + যাপন = উদযাপন, তৎ + অবধি = তদবধি, এক + দশ = একাদশ, দিক্ + অন্ত = দিগন্ত, দিক + গজ = দিগগজ, উৎ + ভব = উদ্ভব, সৎ + ভাব = সদ্ভাব ইত্যাদি।

এ সম্পর্কিত বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তরঃ–

১। ব্যঞ্জনবর্ণের সঙ্গে স্বরবর্ণ মিলে কোন সন্ধি হয়?

ক) স্বরসন্ধি

খ) ব্যঞ্জনসন্ধি

গ) বিসর্গ সন্ধি

ঘ) নিপাতনে সিদ্ধ সন্ধি

সঠিক উত্তর : খ) ব্যঞ্জনসন্ধি

২। ব্যঞ্জনসন্ধি কত প্রকার?

ক) কোনো প্রকারভেদ নেই

খ) দুই প্রকার

গ) তিন প্রকার

ঘ) চার প্রকার

সঠিক উত্তর : গ) তিন প্রকার

 

৩। প্রকৃত বাংলা ব্যঞ্জনসন্ধি কোন নিয়মে হয়ে থাকে?

ক) বিষমীভবন

খ) সমীভবন

গ) অসমীকরণ

ঘ) স্বরসংগতি

সঠিক উত্তর : খ) সমীভবন

 

৪। হলন্ত ধ্বনির সাথে স্বরধ্বনি যুক্ত হলে স্বরধ্বনিটি কী হয়?

ক) দ্বিত্ব হয়

খ) সংক্ষিপ্ত হয়

গ) লুপ্ত হয়

ঘ) লুপ্ত হয় না

সঠিক উত্তর : ঘ) লুপ্ত হয় না

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x