হেলিকপ্টার থেকে ফেলা ত্রাণ নিতে গিয়ে একজনের মৃত্যু

47

বন্যা কবলিত এলাকা সুনামগঞ্জ তাহিরপুর উপজেলায় বন্যার্থদের মাঝে বিমানবাহিনীর ত্রাণ বিতরণের সময় আহত বিপ্লব মিয়া (৬০) মারা গেছেন। তিনি উপজেলার সদর ইউনিয়নের উজান তাহিরপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস শহীদের ছেলে। তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাবেক মেম্বার মতিউর রহমান মতি। তিনি নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, সোমবার আহত হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার অবস্থা খারাপ হলে মঙ্গলবার ভোরে তাকে সিলেট রের্ফার করলে সকাল সাড়ে ৯টায় সিলেট রাগিব আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তারগন তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে নিহতের পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইউএইচএফপিও ডা. মির্জা রিয়াদ হাসান নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বেশিরভাগই ঘাড়ে, মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন। আহত বিপ্লবকে রের্ফাড করা হলে সিলেটে মারা যায়। অন্যান্য আহতদেরকে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সুহেল রানা বলেন, ত্রাণ বিতরণের জন্য এয়ারফোর্সের একটি হেলিকপ্টার তাহিরপুরে এসেছিল। বন্যার পানির জন্য সদরের কোনো স্থানে নামতে না পারায় আকাশ থেকেই তারা ত্রাণের বস্তা মাটির দিকে নিক্ষেপ করেছিল। অসহায়, বুভুক্ষু মানুষগুলো সেগুলোই দুই হাতে গ্রহণ করার জন্য ছুটে গিয়েছিলেন। এ সময় কে কার আগে ত্রাণ সংগ্রহ করবেন সেই ধাক্কাধাক্কিতে ১০জন আহত হন।

প্রতক্ষদর্শী স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বন্যা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো হেলিকপ্টার উপজেলায় চারাপাশে আকাশে কয়েকবার গুড়তে দেখে ত্রানের জন্যও অনেকেই দেখতে যায়। আমিও সেখানে যাই। পরে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম মাঠে উপর থেকে ত্রান বিতরণের প্যাকেট বিতরণ ফেলে দেয় এ সময়। এ সময় ধাক্ষা ধাক্ষি করতে গিয়ে ৯-১০জন আহত হয়।

Previous articleএনজিও কি? What is NGO?
Next articleনারায়ণগঞ্জে আরো এক নারীর একসাথে ৩ সন্তানের জন্ম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here