কাউন্টার কি? , কেন ব্যাবহার করা হয়?

কাউন্টারঃ কাউন্টার হলো এমন একটি সিকুয়েন্সিয়াল ডিজিটাল ইলেকট্রনিক্স সার্কিট যা  ফ্লিপ-ফ্লপ এবং লজিক গেইট দিয়ে গঠিত এবং তাতে দেয়া ইনপুট পালসের সংখ্যা গুণতে পারে। যে কাউন্টার বাইনারি সিকুয়েন্স অনুসরণ করে তাকে বাইনারি কাউন্টার বলে। একটি কাউন্টার কত থেকে
কত গণনা করবে তা কাউন্টার এর ডিজাইনের উপর নির্ভর করে। সুতরাং, একটি n বিট বাইনারি কাউন্টার 0 থেকে 2n -1 পর্যন্ত পর্যায়ক্রমিক গুণতে পারে।
কাউন্টারের প্রকারভেদ: কাউন্টার সাধারণত দুই প্রকার ১/ সিনক্রোনাস কাউন্টার ,২ এসিনক্রোনাস কাউন্টার
এখানে আবার সিনক্রোনাস কাউন্টারকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে ক) আপ কাউন্টার খ) ডাউন কাউন্টার আবার
এসিনক্রোনাস কাউন্টার কেউ দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে ক) রিপল আপ কাউন্টার খ) রিপল ডাউন কাউন্টার।
কাউন্টারের ব্যবহার:
  • ১. ক্লক পালসের সংখ্যা গণনার জন্য
    ২. টাইমিং সিগন্যাল প্রদানের জন্য
    ৩. ডিজিটাল কম্পিউটারে
    ৪. ডিজিটাল ঘড়িতে
    ৫. বৈদ্যুতিক স্পন্দন গণনার ক্ষেত্রে
    ৬. প্যারালাল ডেটাকে সিরিয়াল ডেটায় রূপান্তর করতে।
5/5 - (36 votes)