Modal Ad Example
Blog

বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায়

1 min read
বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায়

বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায়

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক আজ আমি আপনাদের সাথে বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। আমরা হয়তোবা অনেকেই জানিনা বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয়ে। বাংলা লিখে আয় করা বর্তমানে অনলাইনে টাকা আয়ের অন্যতম মাধ্যম। আর একেই কাজে লাগিয়ে বর্তমানে অনেকেই নিজের পার্টটাইম ইনকামের পাশাপাশি মূল্য ইনকাম হিসেবেও বাংলা কনটেন্ট রাইটিং বা বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এটা বেছে নিচ্ছে। তবে এখানে মূল সমস্যা এটাই যে যারা নতুন হিসেবে এই বাংলা লেখা শুরু করতে চান তারা এসব সম্পর্ককে এমন কোন জ্ঞান রাখে না আর তাদের জন্যই আমাদের বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই আর্টিকেলটি।

বাংলা লিখে আয় করার মাধ্যম গুলো কি কি

প্রথমে আমাদের জেনে নিতে হবে যে বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এর মাধ্যম গুলো কি কি। কেননা তা না হলে আমরা বুঝতে পারবো না আমাদের ইনকামটা কেমন হবে। সে ক্ষেত্রে আপনি নিম্নোক্ত উপায় গুলো দেখে নিতে পারেন-

নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বাংলা লিখে আয়, টেস্ট পোস্ট লিখে আয়, কন্টেন রাইটিং বা বাংলা কন্টেন রাইটিং করে আয়, মূলত এ তিনটি উপায়ে আপনি বাংলা কনটেন্ট বা বাংলা লিখে আয় করতে পারেন।

বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায়

বাংলা লিখে  মাসে কত টাকা আয় করা যায় এটা কোনদিনই বলা হয়তো সম্ভব হবে না। কারণ একেক জন বাংলা লিখে এক এক রকম আয় করে। তবে মূল যে বিষয়টা যেটা তার নিয়েই আপনাকে বলব। বাংলা লিখে আপনি কখনো ইংরেজি কন্টেনের মতো স্যালারি বা সম্মানি আয় করতে পারবেন না। এটা হল প্রথম কথা। কারণ বাংলা লেখার কদর শুরু বাংলা জুড়ে।

আর ইংরেজি কনটেন্ট তো সারা বিশ্বজুড়ে সমাদৃত। তবে বাংলা কনটেন্ট যে একেবারেই বিফলে যাচ্ছে তা কিন্তু নয়। কারণ এই বাংলা দিয়েই এখন অনেকেই নিজের ক্যারিয়ারকে গড়ে নিয়েছে। তাই আপনিও পারবেন আশা করি বাংলা লিখেন মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয়ে। আর সাধারণ কথা বলতে গেলে বাংলা কন্টেন বা বাংলা লিখে আপনি প্রতিটি লেখার জন্য ১০০ টাকা থেকে শুরু করে এক হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এ বিষয়গুলো পুরোপুরি আপনার অভিজ্ঞতার সাথে সমানুপাতিক।

নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায়

প্রথমত আমরা যে ভাগটি দেখেছিলাম তা ছিল নিজের ব্লগে বা ওয়েবসাইটের লিখে আয়। আর সবচেয়ে বেশি ইনকামও কিন্তু এটি। একটি ব্লগ এখন আপনি নিজে ইচ্ছাতেই খুলতে পারেন আবার প্রফেশন এর জন্য। তবে এখান থেকে একটি হিউজ পরিমাণ পেসিভ ইনকাম আসতে পারে। বাংলার অন্যতম একটি ব্লগ   জে  আই টি, এর এডমিন সম্প্রতি তার একটি আর্টিকেল জানিয়েছে যে তিনি মাসে নাকি ৫০০ ডলার ইনকাম করেন। ভাবতে পারেন এত টাকা কিভাবে আয় করে শুধু ব্লগিং করেই?

বিশ্বের একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে যে 20% ব্লগ এমন রয়েছে যে তাদের মালিকেরা দিব্যি তাদের সংসার চালাতে পারে এই ব্লগের টাকা দিয়েই। আবার এমনও দেখা গেছে যারা এর চেয়েও বেশি পরিমাণ ইনকাম করতে পারে। সুতরাং নিজের ব্লগ যদি ফুলে নই তবে নিঃসন্দেহে আপনি এখান থেকে একটি বড় এমাউন্টের টাকা অর্জন করতে পারবেন। আর ব্লগের আর্টিকেলের পাশাপাশি আপনি তো স্পন্স এর ব্যবস্থাও নিতে পারেন। তো দেরি কেন আজই লেগে পড়ুন বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয়ে।

গেস্ট পোস্ট লিখে আয়

গেস্ট পোস্ট মূলত বোঝায় অন্যের ওয়েবসাইট বা ব্লগে লেখা। অন্যের ব্লগ আপনি বাংলা লিখতে পারেন টাকার বিনিময়ে। আপনার বাংলা লেখার হাত হালকা ভালো থাকলেই আপনি এক্ষেত্রে কিছুদিনের অনেকটা এগিয়ে যেতে পারেন। জনপ্রিয় কিছু সাইট হল- হতভাগা ডটকম, যে আইডি, এবং টেকটিউন্স। এসব সাইট থেকে আপনি গেস্ট পোস্ট এর একটি ভালো এমাউন্ট পেতে পারেন। আর মাসে এই গেস্ট পোস্ট থেকে আরো প্রাইস সরিয়ে যেতে পারে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

বাংলা কন্টেন রাইটিং করে আয়

বাংলা লেখার অন্যতম একটি এবং সেরা একটি মাধ্যম হিসেবে আমি তাকে চিহ্নিত করব তা হল বাংলা কনটেন্ট রাইটিং। হ্যাঁ এই বাংলা কন্টেন রাইটিং এর মাধ্যমে আপনি অনেক ভাল একটি এমাউন্টের টাকা নিজের পকেট ভরে ফেলতে পারেন। বাংলা কনটেন্ট রাইটিং এবং এতটা জনপ্রিয়তা পেয়েছে যা আপনাকে আর কি বলব।

বর্তমানে বাংলাদেশ ও ভারতে অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা এ দেশের যুবকদের জন্য বাংলা কন্টেন রাইটিং এর ব্যবস্থা করেছেন। এর ফলে যেখানে চাকরি করে মাসে মাসে ১০ থেকে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবে। আপনি কি ভাবতে পারেন শুধুমাত্র বাংলা লিখি এমনটা আয় করার কথা। না ভাবতে পারলেও এখন ভাবতে হবে।

বাংলা কনটেন রাইটিং এর কিছু প্রতিবন্ধকতা

বাংলা লিখে আয় করা যায় ঠিকই তবে ইংরেজি এর মত এতটা সুযোগ সুবিধা না থাকায়, বাংলা লিখে তেমনটা করা যায় না যতটা যায় ইংরেজিতে। আর এই সীমিত সম্মানী এর মধ্যেও রয়েছে হাজার সীমাবদ্ধতা। রাইটিং এর পিছনে আপনার প্রতিবন্ধকতা কি হতে পারে।

ভালোভাবে  রিসার্চ না করা

বাংলা লিখে আয় করতে না পারা বা বাংলা কন্টেন এত সমৃদ্ধ না হওয়ার অন্যতম একটি কারণ রিসার্চ না করে কাজ করা। হ্যাঁ বাংলা কনটেন্ট বেশিরভাগই দেখা যায় ইংরেজি এর অনুবাদ। আবার এই অনুবাদে পুরো বিষয়টিও কভার করা হয় না। যার ফলে দেখা যায় বাংলা লেখা ততটা সমৃদ্ধ হয় না। আর বাংলা কনটেন্ট বা লেখা সমৃদ্ধ না হওয়ার কারণে তাদের সম্মানীয় এতটাই কম। সম্প্রতি আরো একটি বিষয় পরিলক্ষিত হচ্ছে যে বাংলা লেখাকে আরেক লেখা থেকে কপি করা হচ্ছে।

সঠিক এবং সহজ ভাষা ব্যবহার না করা

বাংলা  ভাষাঅত্যান্তই সমৃদ্ধ তবে বাংলা ওয়েব কন্টেনের দিকে তাকালে যেন অন্য এক বাংলা ভাষাকে দেখা যায়। আর সে কারণেই হয়তো পাঠক সমাজ বাংলা কনটেন্টকে বাদ ইংরেজিকে বেশি প্রধানমন্ত্রী দেন। এক্ষেত্রে দোষটা কিন্তু আমাদেরই কারণ আমরা ঠিকমতো কন্টেন দিতে পারছিনা ভিজিটর এর কাছে। ফলে তারা আর সাইডের প্রতি আটটা পাচ্ছে না। ফলে কিছু হচ্ছে? আমাদের পুরো ইনকামটাই কমে যাচ্ছে। করা যেতে পারে তা হলো বাংলা ভাষার বানান ঠিক করা।। সেই সাথে সঠিক রীতি অনুসারে বাক্য গঠন করা।।

পরিশেষে

আপনারা যদি বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয়ে জানতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত করবেন। বাংলা লিখে আপনি দিব্যি নিজের পকেট মানি বা মাসের আইটা চালিয়ে দিতে পারবেন। এতে করে আপনার কোন ধরনের সমস্যাই হবে না। তবে ইংরেজি এর মত এতটা রিস্ক ল্যাঙ্গুয়েজ বা ভাষা না হওয়ার কষ্ট আপনাকে একটু বেশি করতে হবে। তাই আপনারা যারা বাংলা লিখে মাসে কত টাকা আয় করা যায় এই বিষয়ে জানতে চান আমাদের আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে বলবেন।

Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment

x