গ্যালভানোমিটার (Galvanometer) এমন এক যন্ত্র যার সাহায্যে তড়িৎ প্রবাহের অস্তিত্ব ও পরিমাণ পরিমাপ করা যায়। চুম্বকের উপর তড়িৎ প্রবাহের ক্রিয়া বা তড়িৎ প্রবাহের উপর চুম্বক ক্ষেত্রের ক্রিয়ার ভিত্তিতে গ্যালভানোমিটার কাজ করে।

গ্যালভানোমিটারের প্রকারভেদ (Types of Galvanometer)

  • চল চুম্বক গ্যালভানোমিটার : এতে চুম্বক শলাকা মুক্ত অবস্থায় থাকে কিন্তু কুণ্ডলী স্থির থাকে।
  • চল কুণ্ডলী গ্যালভানোমিটার : এতে কুণ্ডলী মুক্ত অবস্থায় থাকে কিন্তু চুম্বক স্থির থাকে।

বর্তমানে সর্বত্র চল কুণ্ডলী গ্যালভানোমিটার ব্যবহৃত হয়। এ জাতীয় গ্যালভানোমিটারে একটি স্থির চুম্বকের দুই মেরুর মাঝে একটি চলনক্ষম কুণ্ডলী থাকে। এর আবিস্কারক ডি. আরসোনভ্যাল। এর সুবিধা হচ্ছে:

  • চুম্বক শলাকা ব্যবহৃত হয়না বিধায় এর উপর পৃথিবীর চৌম্বকক্ষেত্রের কোন প্রভাব থাকেনা।
  • ভিতরে শক্তিশালী চৌম্বকক্ষেত্র থাকে বলে বাইরের কোন চৌম্বকক্ষেত্র একে প্রভাবিত করতে পারেনা।
  • কুণ্ডলী স্প্রিংয়ের সাথে সংযুক্ত বিধায় কোন দোলন ছাড়াই সাম্যবস্থায় থাকে।
  • যেকোন অবস্থানে রেখে ব্যবহার করা যায়।

 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x