এক ছেলে থাকে ফরিদপুর – ওর ভাল লাগে বাস্কেটবল আর লেব্রন জেমস।

আপনি যেহেতু মোটিভেশন এ এক্সপার্ট – আপনি বলে বসলেন যে তার যেহেতু বাস্কেটবল ভাল লাগে,
তার উচিত সব বাদ দিয়ে সারাদিন বাস্কেটবল নিয়ে পড়ে থাকা।
ঐ ছেলে এন বি এ তে চান্স পাবে এই চান্স ০ থেকে একটু বেশি। ওর লাইফ ধ্বংস হয়ে যাবে এই চান্স ৯৯% থেকে একটু বেশি।
প্যাশন নিয়ে কথা বার্তা এজন্য হিসাব করে বলতে হয়।

আমি যেহেতু ব্যবসা বাণিজ্য করি – আমাকে অনেকে বলে – রিস্ক নিবো ভাই – ইন্টারের পরে আর পড়বো না –
ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য কোন একটা স্কিল শিখবো – বা ভাই, একটা ব্যবসার আইডিয়া মাথায় ঘুরছে – ভাবছি এই সেমিস্টার টা ড্রপ দিয়ে ব্যবসায় ফোকাস করবো।
এদের সবাইকে আমি বলি – ব্যবসা বা প্যাশন এর জন্য মূল সেফ প্লে গুলো থেকে সময় ধার নেয়া টা ঠিক না –
সময় নিতে হবে আজাইরা জিনিস থেকে।
আপনার এত যদি প্যাশন হয় তমুক জিনিস এর – তাহলে ২ ঘণ্টা কম ঘুমান ঐটায় সময় দেয়ার জন্য,
মূল পড়ালেখা তে সাবট্র্যাকশন এর কোন মানে নাই।

আমরা এমেরিকান ইকনমি না যে আপনি ব্যবসায় ব্যর্থ হবেন তারপর স্টিমুলাস চেক দিয়ে চলবেন বা সোশাল সিকিউরিটি আপনাকে বাঁচাবে।
যদি তাও বাঁচাইতো, সমাজ ই আপনাকে মেরে ফেলবে ব্যর্থ হওয়ার কথা শুনিয়ে শুনিয়ে।
আমি যে এত জ্ঞান দেই আপনাদের ব্যবসা নিয়ে বা মার্কেটিং নিয়ে – আমার নিজের ই কিন্তু নর্থ সাউথে ছিল ডাবল মেজর – মার্কেটিং এর সাথে এইচ আর।
এইচ আর ছিল ব্যাক আপ – যেন মার্কেটিং এ কিছু না হলে এইচ আর এ মুভ করতে পারি।

ব্যাপ আপ ছাড়া চলা টা রেবেল হওয়া না, গাধামি।

আমি আমার পুরা অলমোস্ট ১ মিলিয়ন ডলার রেভেনিউ এর ব্যবসা বাণিজ্য এম্পায়ার দাঁড় করিয়েছি মেইনস্ট্রিম ক্যারিয়ারের পাশাপাশি –
২০১০ এ এস এস সি, ২০১২ তে ইন্টার, ২০১৩ তে নর্থ সাউথে ব্যাচেলর, ২০১৭ তে ব্যাচেলর শেষ, ২০১৮ তে মাস্টার্স শুরু – ২০১৯ এ মাস্টার্স শেষ।
এবং আমি আমার পুরো ব্যবসা বাণিজ্য দাঁড় করিয়েছি এই সেম ২০১৬-২০২০ উইন্ডো টায়।
একবারো মনে হয় নাই যে এদিক থেকে আয় রোজগার হচ্ছে তাই ওগুলা না করি।
তাই আমাকে কেউ এসে যখন বলে সামনে সেমিস্টার ফাইনাল তাই এই স্কিল টা শিখতে টাইম পাই না, বা এই ব্যবসায় ফোকাস করার টাইম পাই না –
এগুলা শুনলে আমার হাসি আসে 😑

ক্যারিয়ার এর দিক থেকে চিন্তা করে বলছি (ইমোশনাল লজিক না)- আপনার প্যাশনের ওপরে আপনি অবশ্যই কাজ করবেন –

তবে আগে দেখবেন আপনার প্যাশন টা মার্কেটে ভায়াবল কিনা।
আপনার প্যাশন যদি হয় ঘুড়ি ওড়ানো – তাহলে সেই প্যাশন দিয়ে মার্কেটে ভাল করতে পারার সুযোগ কম।
কোথাও কেউ কি ঘুরিয়ে উড়িয়ে ভাল ক্যারিয়ার দাঁড় করাতে পেরেছে? হয়তো পেরেছে – তবে পার্সেন্টেজ এর হিসেবে এই সুযোগ কম।

প্যাশন জিনিস টা দিন শেসে একটু ওভাররেটেড বলেই মনে হয় আমার। হার্ড ওয়ার্ক তার থেকে অনেক বেশি জরুরি।

-খালিদ ফারহান

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x