আমাদের দেশের যারা ইঞ্জিনিয়ার হতে চায় সেই সকল ছাত্র/ছাত্রীদের অধিকাংশেরই বুয়েটের পরেই চুয়েট,কুয়েট,রুয়েট পছন্দ। তুমি যদি ইঞ্জিনিয়ার হতে চাও তাহলে দেখে নাও চুয়েট,কুয়েট,রুয়েট ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে কি কি যোগ্যতা অর্জন করতে হবে।

আসন সংখ্যাঃ

রুয়েটের মোট আসন সংখ্যা ১২৩৫ টি। তার মধ্যে ৫ টি সংরক্ষিত আসন।
কুয়েটের আসন সংখ্যা মোট ১০৬৫ টি।তার মধ্যে ৫ টি সংরক্ষিত আসন।
চুয়েটের আসন সংখ্যা মোট ৯০১ টি।তার মধ্যে ১১ টি সংরক্ষিত আসন।

সমন্বিত ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষার মোট আসন সংখ্যা ৩২০১ টি। তার মধ্যে ২১ টি আসন সংরক্ষিত। অর্থাৎ,সংরক্ষিত আসন ব্যতীত চুয়েট,কুয়েট,রুয়েটের মোট আসন সংখ্যা মাত্র ৩১৮০ টি। অথচ প্রতিষ্ঠানগুলোতে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার স্বপ্ন বুনছে লক্ষ তরুণ/তরুণী।তোমাকে তাদের সাথে প্রতিযোগিতা করে ১ টি আসন নিজের করে নিতে হবে।

ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আবেদন যোগ্যতাঃ

১) দেশের যে কোন শিক্ষাবোর্ড থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী কে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৪ পেতে হবে।মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড পেতে হবে।

২) উচ্চ মাধ্যমিক/আলীম সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী কে গণিত,পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন, ইংরেজি প্রত্যেকটি বিষয়ে আলাদাভাবে গ্রেড পয়েন্ট ৫ পেতে হবে।
অর্থাৎ এই সকল বিষয়গুলো মিলিয়ে মোট গ্রেড পয়েন্ট ২০ হতে হবে।
ঠিক এই কারণে ইঞ্জিনিয়ার হতে চাইলে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বইয়ের সাথে সম্পর্ক তৈরি করে ভালোভাবে পড়তে হবে।
বইয়ের সাথে সম্পর্ক গড়লে ফলাফল ভালো হবে চুয়েট,কুয়েট,রুয়েটে পড়ে ইঞ্জিনিয়ারও হতে পারবে।
কিন্তু,বইয়ের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলতে না পারলে ইঞ্জিনিয়ার হয়ে উঠা সম্ভব নাও হতে পারে।

৩) সর্বশেষ যে ধামাকা তা হচ্ছে যোগ্য আবেদনকারীদের মধ্য হতে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় গণিত,ইংরেজি, পদার্থ, রসায়ন বিষয়ে মোট প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মাত্র ৩০ হাজার জন কে চুয়েট,কুয়েট,রুয়েটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদান করা হবে।

তুমি নিজেই উপলব্ধি করতে পারছো রুয়েট,চুয়েট,কুয়েটে পড়তে চাইলে অর্থাৎ ইঞ্জিনিয়ার হতে চাইলে তোমাকে একটি যুদ্ধ করতে হবে।
যুদ্ধ তে জয়ী হতে হলে তোমাকে গণিত,পদার্থ, রসায়ন, ইংরেজির সাথে বন্ধুত্ব তৈরি করে তোমার প্রতিপক্ষকে যুদ্ধে হারাতে হবে।
তোমার প্রথম যুদ্ধ ভর্তি অংশগ্রহণের সুযোগ অর্জন করা।
দ্বিতীয় যুদ্ধ পরীক্ষায় ভালো করা।
দুইটি যুদ্ধের একটাই অস্ত্র বই।

বিশেষভাবে মনে রাখতে হবে চুয়েট,কুয়েট,রুয়েট MCQ ভর্তি পরীক্ষায় ভুল উত্তরের জন্য মোট প্রাপ্ত নম্বর থেকে সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন সমূহের জন্য বরাদ্দ নম্বরের ২৫% কাটা হবে।

চুয়েট,কুয়েট,রুয়েট সমন্বিত ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষার আরও বিস্তারিত জানতে এই ওয়েবসাইট ভিজিট করো-https://admissionckruet.ac bd

ইঞ্জিনিয়ার হতে চাইলে উচ্চ মাধ্যমিক পযার্য়ের শুরু থেকেই নিজেকে যোগ্য করে গড়ে তুলো।
চুয়েটে,কুয়েট,রুয়েট ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে প্রতিবছরই বিশেষভাবে যোগ্যতা চাওয়া হয় তা পূর্ববতী বছর হতে পরের বছর আরও কঠিন হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যায়।
তাই,চুয়েট, কুয়েট,রুয়েটে পড়তে চাইলে নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করতে হবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x