যাদের জিপিএ কম এবং কলেজ লাইফে সাইন্সের ছাত্র ছিলে তবুও সাইন্সের সাবজেক্টগুলো বেশি ভালোভাবে পড়োনি তাদের প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিট। একটু ভালোভাবে প্রস্তুতি নিলেই নিজের আসন নিশ্চিত করতে পারবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিটে

২০২০-২১ দের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী ৬০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সেটাকে ৮০ নম্বরে রুপান্তর করে মূল্যায়ন করা হবে। বিভিন্ন বিভাগে পড়ার জন্য ন্যূনতম কত নম্বর পেতে হবে সেটি উল্লেখ করে দিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ-

১) বাংলা বিভাগে ভর্তির জন্য তোমাকে বাংলা অংশে ন্যূনতম ৫০% এবং ইংরেজি অংশ ৪০% নম্বর পেতে হবে।
২) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিটের অন্তর্ভুক্ত ইংরেজি বিভাগে পড়তে চাইলে ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজিতে ন্যূনতম ৫০% নম্বর পেতে হবে।
৩) IR বিভাগে পড়ার জন্য আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি ১০ নম্বরের মধ্যে ন্যূনতম ৭০% নস্বর পেতে হবে।
৪) জার্নালিজমের জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিট ভর্তি পরীক্ষায় বাংলা ও ইংরেজি অংশে পৃথকভাবে ন্যূনতম ৫০% নম্বর পেতে হবে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) কর্তৃপক্ষ যে বাধ্যবাধকতা দিয়েছে তা আপাত দৃষ্টিতে কঠিন মনে হলে নম্বর তোলা আসলে বেশি কঠিন নয়।
ভালোভাবে সঠিক নির্দেশনা মেনে প্রস্তুতি নিতে পারলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিটে একটি আসন নিশ্চিত করা খুবই সহজ।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের C ইউনিটের পরীক্ষা বিষয়-

১) বাংলা
২) ইংরেজি
৩) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক
৪) জার্নালিজম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ
৫) ইতিহাস
৬) দর্শন
৭) প্রত্নতত্ত্ব

এবার পরীক্ষা দেওয়ার জন্য ৫০ মিনিট সময় পাবে। OMR পূরণের জন্য আলাদা ৫ মিনিট সময় পাবে।
মনে রাখতে হবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নের ধরণ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন।
আই-কিউ (IQ) থেকে প্রশ্ন থাকবেই আই-কিউ এর নম্বর নিশ্চিত করতে আই-কিউ সামিট বইটি পড়লেই যথেষ্ট।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্নের ধরণ ভিন্ন রকম হওয়ায়, তোমার প্রস্তুতিও সেরাভাবে নিতে হবে। তাহলেই,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে C ইউনিটে একটি আসন নিশ্চিত করতে পারবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x