উৎপাদনে সাহায্য করে এমন সব প্রাকৃতিক সম্পদকে ভূমি বলে। জমি, মাটি, মাটির উর্বরা শক্তি, খনিজদ্রব্য, বনজ ও জলজ সম্পদ, সূর্য কিরণ, বৃষ্টিপাত, আবহাওয়া প্রভৃতি সব রকম প্রাকৃতিক সম্পদ ভূমির অন্তর্ভুক্ত।

ভূমিসংস্কার বলতে কি বুঝায়?

সাধারণ অর্থে ভূমিসংস্কার বলতে এমন এক কর্মসূচিকে বুঝায় যা ভূমি মালিকানা ও ভূমির ব্যবহারের ক্ষেত্রে এক আমূল পরিবর্তন সূচিত করে। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি করা এবং কৃষকদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করাই হলো ভূমিসংস্কারের মূল লক্ষ্য। তবে ভূমিস্বত্ব ব্যবস্থার দোষ-ত্রুটি দূর করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় আইনকানুন ও বিধি বিধানের সংস্কার সাধন করে ভূমিস্বত্ব ব্যবস্থার ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনয়ন করাকে ভূমিসংস্কার বলা হয়। ভূমিসংস্কার দু’প্রকার  হতে পারে। যেমন- ১. বণ্টনধর্মী ভূমিসংস্কার এবং ২. যৌথধর্মী ভূমিসংস্কার।

১. বণ্টনধর্মী ভূমিসংস্কার : ভূমির মালিকানার সর্বোচ্চ সীমালঙ্ঘন করার পর যে উদ্বৃত্ত জমি পাওয়া যায় তা ক্ষুদ্র কৃষক ও ভূমিহীন চাষিদের মধ্যে বণ্টন করে দেয়াকে বণ্টনধর্মী ভূমিসংস্কার বলে।

২. যৌথধর্মী ভূমিসংস্কার : ভূমির ব্যক্তিগত মালিকানাধীনে আনয়ন করাকে যৌথধর্মী ভূমিসংস্কার বলে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x