আইএসও কি? আইএসও এর গুরুত্ব কি? What is ISO?

আইএসও (ISO) এর পূর্ণ অর্থ হচ্ছে International Organization for Standardization (আন্তর্জাতিক মান উন্নয়ন সংস্থা)। এটি বিশ্বের মান উন্নয়নে সহায়তা করে থাকে। এটি একটি স্বাধীন, বেসরকারী প্রতিষ্ঠান যেটি প্রায় ১৬২ দেশের জাতীয় মান উন্নয়ন কমিটি (National Standard bodies) দ্বারা গঠিত।

এটি ১৯৪৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটির সদর দপ্তর জেনেভা, সুইজারল্যান্ডে অবস্থিত। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানের সদস্য ১৬২টি দেশ এবং প্রায় ৩৩৬৮ কারিগরী বাের্ড (Technical body) মান উন্নয়নে কাজ করে। এর সদর দপ্তরে প্রায় ১৫০ জন লােক পূর্ণকালীন কর্মরত রয়েছে। ISO ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি করে। ISO এর কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ পণ্যের গুণাগুন সম্পর্কে নিশ্চিত হয়, যার কারনে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের যে বাধা আছে তা দূর হয়। ISO সর্বক্ষেত্রেই আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে সহায়তা করে থাকে। খাদ্য নিরাপত্তা থেকে কম্পিউটার, কৃষি থেকে স্বাস্থ্যসেবা ISO সর্বক্ষেত্রে আমাদের জীবনে প্রভাব বিস্তার করেছে।

আইএসও এর গুরুত্ব
আন্তর্জাতিক ব্যবসায় বাণিজ্য এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে আইএসও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। আইএসও শুধুমাত্র গ্রাহকদেরকে উন্নতমানের পণ্য সরবরাহের নিশ্চয়তা প্রদান করে না; এটি আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের বাধা দূর করে ব্যবসায় বাণিজ্যের উন্নয়নে সহায়তা করে থাকে। নিচে আইএসও এর গুরুত্ব সংক্ষিপ্তভাবে তুলে ধরা হলাে–

  • আইএসও (ISO) নিশ্চিত করে যে পণ্য বা সেবা নিরাপদ, বিশ্বস্ত এবং ভাল মানের। এর ফলে গ্রাহকরা বুঝতে পারে পণ্যটি নিরাপদ। যার কারণে গ্রাহকরা ভেজাল পণ্যের হাত থেকে রক্ষা পায়।
  • ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে আইএসও একটি কৌশলগত যন্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়। আইএসও এর কারণে ব্যবসায়ের মােট ব্যয় হ্রাস পায় । আইএসও এর কারণে ব্যবসায়-প্রতিষ্ঠানের অপচয় এবং ভুল ত্রুটি হ্রাস পায় এবং উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
  • আইএসও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানকে নতুন নতুন মার্কেটে ঢুকতে সহায়তা করে থাকে। উন্নয়নশীল দেশের জন্য সুষম বাজার (Playing field) তৈরি করে। যার কারণে উন্নয়নশীল দেশ ও সমভাবে নতুন নতুন বাজারে প্রবেশ করতে পারে।
  • আইএসও, মুক্ত এবং ন্যায্য বিশ্ব ব্যবসায় সৃষ্টিতে সহায়তা করে থাকে।
  • ক্রেতা সন্তুষ্টি এবং ক্রেতা ধরে রাখতে সহায়তা করে থাকে।
  • নিরীক্ষার পরিমান কমায়।
  • ইহা কর্মীদের প্রেষনা, সচেতনতা এবং নৈতিকতা বৃদ্ধি করে।
  • এটি ব্যবসায়ের মুনাফা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে।
  • অপচয় রােধ করে এবং উৎপাদন বৃদ্ধি করে।

উপরের আলােচনা থেকে আমরা বলতে পারি পণ্যের মান উন্নয়নে এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে আইএসও এর গুরুত্ব অনেক ভূমিকা পালন করছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x