ঔপনিবেশিক শাসনঃ একটি দেশ যখন নিজ আধিপত্যের জোরে অন্য কোনো দেশে উপনিবেশ প্রতিষ্ঠা করে তখন সেই শাসনকে ঔপনিবেশিক শাসন বলে।

ঔপনিবেশিক শাসনের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে দখলদার শক্তি যতদিন শাসক হিসেবে থাকে ততদিন সেই দেশের ধন-সম্পদ নিজ দেশে পাচার করে। তারপর যখন জনগণ তাদের শাসনে বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে তখন তারা নিজ দেশে ফিরে যায়।

কোম্পানির শাসনঃ কোম্পানির শাসন বলতে বাংলায় ‘দি ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসনকে বোঝায়।

১৭৫৭ সালে ব্রিটিশরা বাংলায় তাদের শাসনের গোড়াপত্তন করলেও সে সময় তা ব্রিটিশ রাজ্যের শাসন হিসেবে বিবেচিত হতো না। বরং ব্রিটিশ রাজ্যের অনুমোদিত প্রতিনিধি হিসেবে ‘দি ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি’ বাংলা শাসন করত। ইতিহাসে এ শাসনকালই হলো কোম্পানি শাসন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x