b

ইউনেস্কো (UNESCO) জাতিসংঘের একটি সামাজিক সংস্থা, এ সংস্থার পুরো নাম United Nations Educational Scientific and Cultural Organisation অর্থাৎ জাতিসংঘ ‘শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা।’ ১৯৪৬ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এর সদর দপ্তর ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে অবস্থিত। ইউনেস্কোর সদস্য রাষ্ট্র ১৯৫ টি।

ইউনেস্কোর প্রধান লক্ষ্য হলো শিক্ষা, বিজ্ঞান, সংস্কৃতি ও যোগাযোগের ক্ষেত্রে বিভিন্ন জাতির মধ্যে সহযোগিতা সৃষ্টির মাধ্যমে বিশ্ব শান্তি নিশ্চিত করা।

পৃথিবীর সব মানুষের মধ্যে ন্যায়বিচার, আইনের শাসন ও মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ জাগ্রত করার লক্ষ্যে ইউনেস্কো কাজ করে যাচ্ছে। ইউনেস্কোর মূল কাজের ক্ষেত্র চারটি– শিক্ষা, বিজ্ঞান, সংস্কৃতি ও যোগাযোগ। সংস্থাটি বাংলাদেশ থেকে নিরক্ষরতা দূরীকরণ, বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

ইউনেস্কো কি? ইউনেস্কো কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়? What is UNESCO?

বাংলাদেশে ইউনেস্কোর ভূমিকা

বাংলাদেশ ইউনেস্কোতে যোগ দেয় ১৯৭২ সালের ২৭ শে অক্টোবর। ১৯৭৩ সালে সরকার ‘বাংলাদেশ ইউনেস্কো কমিশন’ গঠন করে। ইউনেস্কো বাংলাদেশ থেকে নিরক্ষরতা দূরীকরণ, বিশেষ করে বয়স্কদের শিক্ষা, বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

ইউনেস্কোর উদ্যোগেই আমাদের ভাষা শহিদ দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারি ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে সারা বিশ্বে স্বীকৃতি লাভ করেছে। এক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের প্রাকৃতিক ঐতিহ্য সুন্দরবন সংরক্ষণে কাজ করেছে ইউনেস্কো। সুন্দরবনকে সংস্থাটি বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও ঐতিহাসিক স্থাপনা যেমন— বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদ, পাহাড়পুরের বৌদ্ধ বিহার ইত্যাদি সংরক্ষণেও ইউনেস্কো সহায়তা করছে।

অতএব, বাংলাদেশে ইউনেস্কোর পরিচালিত বিভিন্ন কর্মকাণ্ড অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x