ওয়েব ব্রাউজ করার জন্য যে সকল সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয় তাকে ওয়েব ব্রাউজার বলে। অন্যভাবে বলা যায়, ওয়েবসাইটগুলো ঘুরে দেখার জন্য ব্যবহারকারী যে বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন, তাকে ওয়েব ব্রাউজার বলে। ব্রাউজার শব্দটির অর্থ হচ্ছে সম্পূর্ণভাবে কোন কিছু পড়া বা দেখা। ওয়েব ব্রাউজার এর মাধ্যমে কোন কিছু খুঁজতে গেলে বা কোন নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের ওয়েবসাইটে গমন করতে হলে একাধিক পথ আছে। ওয়েব ব্রাউজার সফটওয়্যারের উল্লেখযোগ্য কাজসমূহ হল- ইন্টারপ্রেটারের ন্যায় ওয়েবপেজে লিখিত কোডগুলো অনুবাদ করে ফলাফল প্রদর্শন করে, ব্রাউজার সফটওয়্যার ব্যবহার করে সহজে ইন্টারনেট থেকে যে কোন তথ্য খুঁজে বের করা যায়, ওয়েবসাইটের ঠিকানা জানা না থাকলেও সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়, ওয়েবসাইট থেকে তথ্য ডাউনলোড করা যায়, নিজ থেকে ওয়েবসাইটে বিভিন্ন তথ্য আপলোড করা যায় ইত্যাদি।

ওয়েব ব্রাউজার হলো এমন একটি সফটওয়্যার যার মাধ্যমে একজন ব্যবহারকারী যেকোনো ওয়েবপেইজ, ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে অথবা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কে অবস্থিত কোনো ওয়েবসাইটের যেকোনো লেখা, ছবি এবং অন্যান্য তথ্যের অনুসন্ধান, ডাউনলোড কিংবা দেখতে পারেন। কোনো ওয়েবসাইটে অবস্থিত লেখা এবং ছবি একই অথবা ভিন্ন ওয়েবসাইটের সাথে আন্তঃসংযুক্ত (হাইপারলিঙ্কড) থাকলে একটি ওয়েব ব্রাউজার একজন ব্যবহারকারীকে দ্রুত এবং সহজে এই সকল লিঙ্কের মাধ্যমে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে অবস্থিত অসংখ্য ওয়েবপেইজের সাথে তথ্য আদান-প্রদানে সাহায্য করে। নিচে বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় কিছু ওয়েব ব্রাউজারের নাম দেওয়া হলো।

  • ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার (Internet Explorer)
  • মজিলা ফায়ারফক্স (Mozilla Firefox)
  • গুগলক্রোম (Google Chrome)
  • সাফারি (Safari)
  • ওপেরা  (Opera)

কোন প্রোগ্রাম ব্যবহার করবে?
কোন প্রোগ্রামটি ব্যবহার করবে তা একান্তই নির্ভর করছে ব্যবহারকারীর উপর। উপরে যে সব ব্রাউজারের নাম আমরা জেনেছি বা দেওয়া হয়েছে তাদের প্রত্যেকটিই জনপ্রিয়। এদের মধ্যে থেকে ইচ্ছেমত যেকোনো একটি ব্রাউজার ব্যবহার করা যায়। তবে একমাত্র ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারই কেবল আলাদাভাবে ইনস্টল করা লাগে না অর্থাৎ উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের সাথে বিল্টইন ভাবে ইনস্টল হয়ে থাকে। তাই ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যবহার করা সবচেয়ে সহজলভ্য। বাদবাকী অন্য সবগুলো ব্রাউজারগুলো ব্যবহার করতে হলে তাদেরকে আগে সংগ্রহ করতে হবে তারপর আলাদাভাবে ইনস্টল করতে হবে। যদিও ব্রাউজার সংগ্রহ করা সামান্য সময়ের ব্যাপার মাত্র। আমরা ইন্টারনেট থেকে অথবা কোনো বন্ধুর নিকট থেকে অথবা কোনো সফটওয়্যার বিক্রি করে এমন দোকান থেকে সহজেই সফটওয়্যারটি সংগ্রহ করতে পারি।

ব্রাউজার সম্বন্ধে আরও কিছু কথা
প্রত্যেকটি ওয়েব ব্রাউজার ওয়েবসাইটগুলোকে একটু ভিন্নভাবে দেখাই। তবে এই ভিন্নতা খুবই সামান্য। যদি একই সময়ে একটি ব্রাউজার দিয়ে ওয়েবসাইট খোলা হয় তাহলে ভিন্নতা বােঝা কষ্টকর হয়ে যাবে কিন্তু একই সাথে একই সময়ে কয়েকটি ব্রাউজার দিয়ে একটি ওয়েবসাইট খুললে ভিন্নতা বা সূক্ষ পরিবর্তন চোখে পড়তে পারে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x