যেসব উদ্ভিদের ফুল ও ফল হয় না তাদেরকে অপুষ্পক উদ্ভিদ বলে। অপুষ্পক উদ্ভিদকে  ভাগে ভাগ করা হয়। যথা–

  1. আদি উদ্ভিদ,
  2. সমাঙ্গ উদ্ভিদ,
  3. মস ও
  4. ফার্ন।

১. আদি উদ্ভিদ : এরা এত ক্ষুদ্র যে খালি চোখে দেখা যায় না। অণুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে এদেরকে দেখা যায়। এরা অসবুজ ও পরভোজী। যেমন– ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া ইত্যাদি।

২. সমাঙ্গ উদ্ভিদ : যেসব উদ্ভিদের দেহকে মূল, কাণ্ড ও পাতায় বিভক্ত করা যায় না, তাদেরকে সমাঙ্গ বর্গের উদ্ভিদ বলে। সমাঙ্গ উদ্ভিদের যেগুলো সবুজ ও স্বভোজী তাদের শৈবাল বলে এবং যেসব অসবুজ ও পরভোজী তাদেরকে ছত্রাক বলে। যেমন– স্পাইরোগাইরা, ঈস্ট ইত্যাদি।
৩. মস উদ্ভিদ : মসবর্গীয় উদ্ভিদের কাণ্ড ও পাতা রয়েছে। মূল নেই তবে কাণ্ডের তলদেশ থেকে মূলের মতো সূত্রাকার রাইজয়েড রয়েছে। এরা সবুজ ও স্বভোজী। এদের কোনো পরিবহন কলা নেই। এরা স্যাঁতস্যাঁতে ইট, পুরাতন দেয়াল, গাছের বাকল ইত্যাদি পুরাতন ভেজা জায়গায় জন্মায়। যেমন, মস।
৪. ফার্ন উদ্ভিদ : ফার্ন অপুষ্পক উদ্ভিদের মধ্যে সবচেয়ে উন্নত উদ্ভিদ। ফার্নের দেহ মূল, কাণ্ড, ও পাতায় বিভক্ত। এদের পরিবহন টিস্যু আছে। এদের ফুল হয় না। বাড়ির পাশে স্যাঁতস্যাঁতে ছায়াযুক্ত জায়গায় এবং পুরানো দালানের গায়ে এরা প্রচুর পরিমাণে জন্মায়। যেমন, ঢেঁকিশাক।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x