কম্পিউটার হার্ড ডিস্ক বেশি ব্যবহারের ফলে হার্ড ডিস্কের লেখাগুলাে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে যায়। এ অবস্থাকে হার্ড ডিস্ক অসজ্জিত বা Defrag বলে। তখন কম্পিউটারকে কোন কিছু পড়তে বললে আগের তুলনায় বেশি সময় প্রয়ােজন নেয়। এ অবস্থায় ডিস্কের সর্বোচ্চ কার্যকারিতা নিশ্চিত করার জন্য Disk Defragmenter কমান্ডটি ব্যবহার করা হয়। Defragmenter কমান্ডটি ফাইলের তথ্যগুলোকে সাজিয়ে গুছিয়ে পুনরায় লিপিবদ্ধ করে। ফলে কোন ফাইল পড়তে গেলে কম্পিউটারের অপেক্ষাকৃত কম সময়ের প্রয়ােজন হয়।

ডিস্ক ডিফ্রাগমেন্টেশন কেন করা হয়?
কম্পিউটারে স্থায়ীভাবে ফাইলগুলো আমরা হার্ডডিস্কে সেভ করে রাখি। বিভিন্ন সময়ে কাজ করার ফলে হার্ডডিস্কের ফাইলগুলোর বিন্যাস এলোমেলো হয়ে যায়। যে কারণে ফাইল এক্সেস করতে সময় বেশি লাগে। ফাইলের বিন্যাস সুবিন্যস্ত রাখার জন্য ডিস্ককে ডিফ্রাগমেন্ট করা উচিত। ডিফ্রাগমেন্টের মাধ্যমে উইন্ডোজ ফাইলগুলোকে সাজিয়ে রাখে। কম্পিউটারের কাজের গতি ঠিক রাখার জন্য এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। নিয়মিত ডিফ্রাগমেন্টেশন করলে ফাইল দ্রুত ওপেন হয়।

ডিফ্রাগমেন্টেশন (Defragmentation) এর ব্যবহার
নিচে ডিফ্রাগমেন্টেশন এর ব্যবহার তুলে ধরা হলো–

  • Defragment কমান্ড প্রয়োগ করে কম্পিউটারে গতি বৃদ্ধি করা হয়।
  • হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে গেলে অথবা কম্পিউটার যথাযথভাবে বন্ধ না করলে কম্পিউটারের গতি কমে যায় এবং ফাইলসমূহ খুঁজে পেতে অসুবিধা হয়। এজন্য Defragment করা হয়।
  • ব্যাড সেক্টরগুলো ঠিক হয়ে কম্পিউটার স্বচ্ছভাবে কাজ করতে পারে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x