সাধারণ ইলেকট্রনিক যন্ত্রগুলোর সাথে একটি করে ম্যানুয়াল বা ব্যবহার নির্দেশিকা থাকে। এ নির্দেশিকার একটি বৈশিষ্ট্য হলো এর শেষদিকে এক বা দুটি পৃষ্ঠা থাকে যার শিরোনাম হলো ট্রাবলশ্যুটিং। ট্রাবলশ্যুটিং অংশে সাধারণত সমস্যার প্রকৃতি ও এর সমাধান দেওয়া থাকে।
ট্রাবলশ্যুটিং হচ্ছে সমস্যার উৎস বা উৎপত্তিস্থল নির্ণয়ের প্রক্রিয়া। সাধারণত কিছু প্রশ্ন তুলে ধরা হয় এবং পাশাপাশি সমাধান দেওয়া থাকে। ব্যবহারকারী তার সমস্যার প্রকৃতি অনুযায়ী সমাধান অনুসরণের মাধ্যমে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সমস্যাটি সমাধান করতে পারে।

মূলত ট্রাবলশ্যুটিং হচ্ছে এমন কিছু যা, একটি নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে থেকে করতে হয়। অন্য যেকোনো ইলেকট্রনিক যন্ত্রের তুলনায় কম্পিউটার বা আইসিটি যন্ত্রের ট্রাবলশ্যুটিং একটু বেশিই প্রয়োজন হয়। এর একটি সম্ভাব্য কারণ হতে পারে এ যন্ত্রগুলো আমরা অনেক বেশি সময় ধরে ব্যবহার করি। তাই আইসিটির ব্যবহারকারীদের অবশ্যই সাধারণ ট্রাবলশ্যুটিং সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। সাধারণত হার্ডওয়্যার সম্পর্কিত সমস্যার ক্ষেত্রেও এই কথা প্রযোজ্য। আর তাই কম্পিউটারের সাধারণ ট্রাবলশ্যুটিং আমাদের জেনে রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে আমরা অত্যন্ত স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে কম্পিউটার চালাতে পারবো।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x