লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক কাকে বলে? (What is called Local Area Network in Bengali/Bangla?)

আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা ল্যান ব্যবহার করে থাকি। যেসব নেটওয়ার্ক খুব কাছাকাছি অবস্থিত কম্পিউটারসমূহ ও যন্ত্রপাতির মধ্যে করা হয়ে থাকে তাকে লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা LAN বলে।

লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কের বৈশিষ্ট্য

  •  সীমিত দূরত্বের মধ্যে এর কার্যক্রম সীমাবদ্ধ।
  •  শ্রেণী সংযোগের মাধ্যমে কম্পিউটারগুলো সংযুক্ত হয়।
  •  ডেটা স্থানান্তরের হার সাধারণত ১০ মেগাবিট/সেঃ থেকে ১০০০মেগাবিট/সেঃ।
  •  এই নেটওয়ার্ক স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ পদ্ধতি সহজ ও খরচ কম।
  •  ব্যবহার করা সহজ।
উদাহরণ :
মাইক্রোকম্পিউটার ব্যবহারকারীদের জন্য জনপ্রিয় ল্যানগুলো হল :
১. ইথারনেট;
২. নোভেল;
৩. পিসি নেটওয়ার্ক;
৪. এ. আর. সি;
৫. ওমনিনেট।
LAN এর উপকারিতা :
১. কম্পিউটারের রিসোর্স ভাগ করে ব্যবহার করা যায়।
২. তথ্য আদান প্রদান করা যায়।
৩. রয়েছে উচ্চ ডেটা সম্প্রচার হার।
৪. নেটওয়ার্কের সঙ্গে যন্ত্রাদির সহজ সংযোগ ব্যবস্থা।
৫. নিরাপত্তা।
৬. পিসি ব্যবহারের বিস্তৃতি।
LAN এর প্রয়োগ :
১. ফাইল স্থানান্তর ও তাতে প্রবেশ।
২. ওয়ার্ড ও টেক্সট স্থানান্তর।
৩. প্রসেসিং।
৪. ব্যক্তিগত ফাইলপত্র ব্যবহার ও তথ্য ব্যবহার।
৫. দূরের ডেটাবেসে পৌছানো।
৬. ডিজিটাল স্বর সম্প্রচার ও গ্রহণ ইত্যাদি।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x